|

৫ টি ছোট ব্যবসার আইডিয়া ২০২৩

small business ideas

সাধারণত ব্যবসা করার চিন্তা বা ইচ্ছা সকল মানুষের জীবনেই মাঝে মধ্যেই এসে থাকে। অনেকেই নিয়মিত কাজের পাশাপাশি ছোট ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে কাজ করতে চান। আবার অনেকেই ব্যবসাকেই ক্যারিয়ার হিসেবে বেছে নিতে চান। ব্যবসা শুরু করার চিন্তা মাথায় আসলে ও অনেকেই দ্বিধায় পড়ে যান মুলত পুঁজি নিয়ে। তাই অধিকাংশই প্রথমদিকে অল্প পুজিতে ছোট ব্যবসার আইডিয়া খোঁজেন।

এই আর্টিকেল এ এমন কিছু ছোট ব্যবসা নিয়ে ধারনা দেয়ার চেষ্টা করছি।

ছোট ব্যবসার আইডিয়া দিয়ে আসলেই কি বড় কিছু করা সম্ভব?

অবশ্যই সম্ভব যদি আপনার সময় উপযোগী পরিকল্পনা ও অফুরন্ত ইচ্ছাশক্তি থাকে। আপনি দেখে থাকবেন, সব কিছুই শুরুতে ছোট থেকেই শুরু হয়। আপনি যদি কিছু দেশীয় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের দিকে তাকান তাহলে দেখে থাকবেন, এই গ্রুপগুলির ব্যবসা শুরুর দিকে ছোট ছিল। যেমন, বসুন্ধরা, যমুনা, হামিম গ্রুপ, ওয়ালটন ইত্যাদি। এরকম আরও অনেক বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুঁজে পাবেন যেগুলো শুরুর দিকে খুবই ছোট পরিসরে শুরু করেছিল। কিন্তু সময় উপযোগী পরিকল্পনা, দূরদর্শিতা, ইচ্ছাশক্তি এবং সুযোগ কাজে লাগানোর মাধ্যমে তারা আজ দেশের বড় ব্যবসা গ্রুপ হয়ে উঠেছে।

তাই, ছোট ব্যবসা শুরু করে বড় কিছু করা যায় কিনা, এ নিয়ে ভাববেন না। পরিকল্পনা অনুযায়ী সঠিক ছোট ব্যবসার আইডিয়া কাজে বাস্তবায়ন শুরু করে দিন।

ছোট ব্যবসা করতে কত বিনিয়োগ প্রয়োজন?

এটা নির্ভর করে আপনি কোন ধরনের এবং কি ব্যবসা শুরু করতে চান। সাধারনত ছোট ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে কাজ শুরু করতে খুব বেশি টাকার প্রয়োজন হয়না। আপনি ১০০০ থেকে ৫০০০ টাকা দিয়ে ও একটি ছোট ব্যবসা শুরু করে দিতে পারেন। তবে ভবিষ্যতে ব্যবসায়িক ভাবে বড় কিছু করতে চাইলে বিনিয়োগ এবং ব্যবসা নির্বাচনে ভেবেচিন্তে কাজ করতে হবে। সাধারনত কোন ছোট ব্যবসাকে লং টার্মে বড় ভেঞ্চার করতে হলে প্রথমদিকে ২ লাখ টাকা থেকে ৩ লাখ টাকার মধ্যে বিনিয়োগ থাকা উচিত। অথবা কমপক্ষে ৫০০০০ টাকা থেকে ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ হওয়া উচিত।

তবে যদি অস্থায়ীভাবে কিছু আয় করার জন্য ব্যবসা শুরু করতে চান তাহলে ৫ হাজার টাকায় ব্যবসা থেকে ১০ হাজার টাকায় ও ছোট ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে কাজ শুরু করা যায়।

ছোট ব্যবসা শুরু করতে কত সময় লাগে?

আপনি আপনার ব্যবসার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনার দিন থেকেই ব্যবসা শুরু করে দিতে পারবেন। এটির কোন বাধ্যবাধকতা নেই যে নির্দিষ্ট সময় পরে আপনাকে শুরু করতে হবে। এছাড়া একেবারেই অস্থায়ি ছোট ব্যবসা গুলোতে ব্যবসায়িক কাগজপত্রের এত ফর্মালিটি নেই যে কারনে শুরু করতে দেরি হতে পারে। তবে লংটার্ম পরিকল্পনা নিয়ে ছোট ব্যবসা শুরু করলে কাগজপত্র থেকে শুরু করে সব ফর্মালিটি মেনেই শুরু করা নিরাপদ।

৫ টি ছোট ব্যবসার আইডিয়া ২০২৩

নিচের ব্যবসা গুলো সাধারণত ছোট ব্যবসা হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। এই ব্যবসা গুলো থেকে আপনি অল্প বিনিয়োগে ভাল পরিমাণ অর্থ পেতে পারেন।

  • ফুড কার্ট
  • ছোট মুদির দোকান
  • ফটোগ্রাফি
  • স্যান্ডেল এর ব্যবসা
  • গার্মেন্টস আইটেম এর ব্যবসা

ফুড কার্ট এর ব্যবসা

বর্তমান সময়ের অন্যতম আলোচিত ছোট ব্যবসার আইডিয়া হলে ফুড কার্ট ব্যবসা। সঠিক পরিকল্পনায় এই ব্যবসাটি লং টার্মে চেইন ফুড কার্ট ব্রান্ড হিসেবে ও প্রতিষ্ঠিত করা সম্ভব।

বর্তমানে আধুনিকতার ছোঁয়ায় ভরপুর ফুড কার্ট দেখতে পাই অহরহ। একসময়ে বিদেশি মুভিতে যেসব ফুড কার্ট দেখা যেত সেগুলোই এখন বিভিন্ন জায়গায় দেখতে পাওয়া যায় আমাদের দেশে। ফুড কার্টের ব্যবসায় খুব অল্প পুঁজিতেই আপনি ভাল ব্যবসা দাড় করিয়ে ফেলতে পারবেন।

সাধারণত মোমোস, নুডলস, বার্গার, ফ্রাইস ও বিভিন্ন ধরনের মুখরোচক খাবার ফুড কার্টে বিক্রি করা হয়। খেতে মুখরোচক ও সুস্বাদু হওয়ায় এটিতে লাভের মুখ দেখা অনেক সহজ। মোটামুটি ৩০০০০ থেকে ৫০০০০ হাজার টাকার মধ্যেই আপনি একটি ফুড কার্ট দাঁড় করিয়ে ফেলতে পারবেন। এই ব্যবসাটি ৩০০০০ টাকায় ব্যবসা আইডিয়া গুলোর মধ্যে খুবই জনপ্রিয়।

ছোট মুদির দোকান এর ব্যবসা

ছোট মুদির দোকান এর ব্যবসা একটি অন্যতম ছোট ব্যবসার আইডিয়া। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের চাহিদা সব সময়ই থাকে। একজন মানুষের জীবনে চা,চিনি, দুধ, চাল, ডাল, ডিম সহ অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ছাড়া একটি দিনও পার করা সম্ভবপর হয়ে উঠে না। তাই এই সমস্ত ব্যবসায়ে প্রথম দিন থেকেই ভাল বিক্রি করা যায়।

নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস হওয়ায় বিক্রিও অধিক হয় এবং বিনিয়োগ রোলিং করা যায়। ফলে লাভও অধিক হয়। সাধারনত মুদি দোকানের ব্যবসায়ে পণ্যভেদে ৫% থেকে ২০% এর কমবেশি লাভ হয়ে থাকে।

ফটোগ্রাফি

ফটোগ্রাফি একটি আধুনিক এবং সম্ভাবনাময় ছোট ব্যবসার আইডিয়া।

বর্তমান সময়ে সবাই নিজেদের সুন্দর ছবি তুলতে এবং সংরক্ষন করে রাখতে চায়। হোক সেটা সোস্যাল মিডিয়াতে আপলোডের জন্য অথবা নিজেদের স্মৃতি হিসেবে রেখে দেবার জন্য। তাই ফটোগ্রাফি হয়ে উঠতে পারে একটি ভাল ব্যবসা। আপনার সামান্য কিছু ইনভেস্ট করার মাধ্যমেই, ভাল রোজগার করতে পারবেন প্রতি মাসে। একজন ফ্রি-ল্যান্স ফটোগ্রাফার মাসে ৩০ হাজারের উপরে আয় করে থাকেন সাধারণত।

ফটোগ্রাফিতে খুব ভাল হয়ে থাকলে এবং আপনার সুনাম ছড়িয়ে পড়ে তাহলে তো সোনায় সোহাগা। ফটোগ্রাফি ব্যবসায় একবার স্থায়ি ক্লায়েন্ট পেয়ে গেলে এবং সুনাম হয়ে গেলে মাসিক ইনকাম অবিশ্বাস্য রকম হতে পারে।

স্যান্ডেল এর ব্যবসা

ছোট ব্যবসার আইডিয়া হিসেবে শুরু করলে ও লং টার্মে এ ব্যবসাটি অনেক বড় ব্যবসা হওয়ার সুযোগ আছে। আপনি রাস্তার আশেপাশে স্যান্ডেল এর কিছু কার্ট দেখতে পাবেন যারা দিনে ১০০-১২০ জোড়া স্যান্ডেল বিক্রি করে থাকে। প্রতি জোড়ায় ১০ টাকা করে নীট লাভ ধরলেও মাসিক নীট লাভ আনুমানিক ৩০০০০-৩৬০০০ টাকা

ব্যবসাটির এবিসিডি শিখে বিভিন্ন পয়েন্ট এ এরকম ৪-৫ টা কার্ট দিতে পারলে আপনার মাসিক ইনকাম কত হতে পারে, চিন্তা করে দেখুন! এই ব্যবসাটি এমনকি আপনি ৫০০০ টাকায় ব্যবসা হিসেবেও শুরু করতে পারেন।

গার্মেন্টস আইটেম এর ব্যবসা

এটি আর একটি অন্যতম লাভজনক ছোট ব্যবসার আইডিয়া।

রাস্তার আশে পাশে বা গার্মেন্টস আইটেম এর মার্কেট এর দোকান গুলোতে খেয়াল করে দেখবেন। এসব দোকানে সস্তায় পাওয়া যায় এমন কিছু গার্মেন্টস আইটেম থাকে যেগুলোর ক্রেতা ও বেশি। যেমন- বাচ্চাদের পোশাক, জিনস, গ্যাবাডিঙ প্যান্ট, আন্ডারওয়ার, টিশার্ট, লুঙ্গি, মহিলাদের কিছু পোশাক ইত্যাদি। মুলত গার্মেন্টস থেকে লট মাল হিসেবে বের হওয়া এসব পন্য খুচরা দোকানদাররা পাইকারি রেট এ কিনে খুচরা বিক্রি করে থাকে। এসব পন্য তুলনামূলক সস্তা এবং মান ও মোটামুটি ভালোই। এসব পন্যের ব্যবসায় পন্যভেদে ২০% থেকে ১০০% এর উপর ও লাভ করা যায়!

সম্পর্কিত পোস্ট- ডিলারশিপ ব্যবসা

ছোট ব্যবসা করা উচিত হবে কিনা?

অবশ্যই, বর্তমান যুগে ছোট ব্যবসা হয়ে উঠতে পারে আপনার বিকল্প আয়ের বা প্রধান আয়ের একটি উৎস। আপনি যদি স্টুডেন্ট বা কোন চাকুরীতে থাকেন, তবে ছোট ব্যবসায় আপনার আরেকটি আয়ের পথ সৃষ্টি হবে। এই আয় থেকে আপনি আপনার পছন্দের কোন কিছু কেনা থেকে যে কোন ইনভেস্ট এ ব্যয় করতে পারবেন। আপনার বাড়তি আয়ের পাশাপাশি আজকের এই ছোট ব্যবসাটি হয়ে উঠতে পারে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের একটি চাবিকাঠি।

আরও পড়ুন

নতুন ব্যবসার আইডিয়া

অনলাইন ব্যবসা

১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া

২০২৩ সালের অন্যান্য কিছু ছোট ব্যবসার আইডিয়া

২০২৩ সালের জন্য উপরোক্ত ব্যবসাগুলো ছাড়া অন্য যেসকল ছোট ব্যবসার আইডিয়া লাভজনক হতে পারে।

  • ভার্চুয়াল সহযোগী বা এসিস্ট্যান্ট
  • রাইড সার্ভিস
  • নিজের ফ্লাট বা রুম পর্যটকদের ভাড়া দেয়া
  • ভিডিও এডিটিং
  • ড্রপশিপিং

FAQ

ছোট ব্যবসা করার জন্য কি লাইসেন্স প্রয়োজন?

সব সময় প্রয়োজন হয়না। আপনি যদি ফ্রি-ল্যান্সিং বা রাস্তার পাশে সল্প আয়ের ব্যবসা করেন তাহলে প্রয়োজন হবেনা। তবে দোকান দিয়ে শুরু করলে অবশ্যই ট্রেড লাইসেন্স লাগবে।

ছোট ব্যবসা করার জন্য বিনিয়োগ কেমন লাগে?

আপনার ব্যবসায়িক পরিকল্পনাভেদে ৫০০০ থেকে শুরু করে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত লাগতে পারে।

বাড়ীতে বসে ছোট ব্যবসার আইডিয়া কি কি?

বাড়ীতে বসে করা যেতে পারে এমন কিছু ছোট ব্যবসা হল-
১. হোমমেড খাবারের ব্যবসা
২. হোমমেড আচারের ব্যবসা
৩. টেইলারিং
৪. অনলাইনে পোশাকের ব্যবসা
৫. বিউটি পার্লার

গ্রামে ছোট ব্যবসার আইডিয়া কি কি?

গ্রামে করা যায় এমন কিছু ছোট ব্যবসার আইডিয়া হল-
১. মাছ, মুরগীর খাদ্য
২. বিকাশ/রিচার্জের ব্যবসা
৩. মোবাইল রিপেয়ারিং
৪. কম্পিউটার প্রিন্ট এবং আনুষংগিক এর ব্যবসা
৫. রিকশা গ্যারেজ

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।